Dhaka Reader
Nationwide Bangla News Portal

- Advertisement -

শ্রীপুরে কবি অতুলপ্রসাদ সেনের ৯০ তম প্রয়াণ দিবস পালিত

189

“মোদের গরব, মোদের আশা, আ-মরি বাংলা ভাষা।”

গানটি ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের প্রেরণা যুগিয়ে ছিল। যে গানের স্রষ্টা কবি ও সঙ্গীতবিদ অতুলপ্রসাদ সেন। তিনি ছিলেন বাংলা সাহিত্যের পঞ্চ কবিদের একজন।কবি তার মনের ভাব বেদনা’কে তার গানে যেভাবে উপস্থাপন করেছেন সেই উপস্থাপনাই অনন্য করে তুলেছে তাঁকে ! বহু বছর পেড়িয়ে গেলেও আমাদের সুর ও ছন্দে তিনি অম্লান। আজও বাংলা ভাষা দিবস কিংবা ভাষার গভীরে মন ডুবালে ভাঙ্গালীদের হৃদয়ে দোলা দেয় মোদের গরব, মোদের আশা আ-মরি বাংলা ভাষা গানটি।

এ প্রজন্মের অনেকের সামনে সশ্রদ্ধ স্মরণের মাধ্যমে গান কবিতা ও আলোচনায় কবি অতুল প্রসাদকে তুলে ধরেছেন জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলিত পরিষদ গাজীপুর শাখা।

- Advertisement -

শনিবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে অতুলপ্রসাদ সেনের ৯০ তম প্রয়াণ দিবসে গাজীপুরের কাওরাইদ কালী নারায়ন উচ্চ বিদ্যালয় অডিটোরিয়ামে কবির বিভিন্ন স্মৃতি তুলে ধরেন আয়োজক এবং বক্তারা। বক্তব্য শেষে অতুলপ্রসাদ সেনের রচিত বিভিন্ন গান পরিবেশন করেন গাজীপুর রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদের শিল্পী গোষ্ঠী। কাওরাইদ কালী নারায়ণ উচ্চ বিদ্যালয়টি কবি অতুল প্রসাদের নানা কালী নারায়ণ গুপ্তের নামানুসারে প্রতিষ্ঠিত।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ভাওয়াল বদরে আলম কলেজের বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অসীম বিভাকর।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, অতুল প্রসাদ সেনের সমাধি গাজীপুর জেলার শ্রীপুরের কাওরাইদ হওয়ার কারণে আমাদের পরিচয়ের জায়গা আরও বড় হয়েছে। তিনি আধুনিক বিজ্ঞান চর্চা ও মুক্ত চিন্তার মাধ্যমে সমাজ বিনির্মানে আজীবন লড়েছেন। তিনি বর্ণপ্রথার বিরুদ্ধেও লড়েছেন। তার মুক্ত চিন্তায় সমাজের অনেক কুসংস্কার দূর হয়েছে। তার সামধিস্থল ঢেলে সাজানো হলে ইতিহাস বেঁচে থাকবে নতুন প্রজন্মের জন্য। তিনি বলেন, তার স্মৃতি ধরে রাখতে এখানে লাইব্রেরি গড়ে তুলার প্রয়োজন।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মেলন পরিষদ গাজীপুর জেলা শাখার উপদেষ্টা অধ্যক্ষ মুকুল কুমার মল্লিক, মাওনা পিয়ার আলী কলেজের বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান আহাম্মদুল কবির খোকন, তললী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নুরুজ্জামান, শ্রীপুর সাহিত্য পরিষদের সভাপতি কবি রানা মাসুদ, সাধারণ সম্পাদক মহসীন আহমেদ, কলামিস্ট সাঈদ চৌধুরী, শিশু সাহিত্যিক মিশকাত রাসেল, রাহাদ আকন্দ প্রমুখ। অনুষ্ঠান শেষে সুতিয়া নদীর পাড়ে কবির সমাধী স্থলে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.