Dhaka Reader
Nationwide Bangla News Portal

- Advertisement -

রংপুরে পাওনা টাকা চাওয়ায় সাবেক সেনা কর্মকর্তাসহ সাংবাদিকের উপর হামলা

375

রংপুরে যৌথ মালিকানা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পাওনা টাকা চাওয়ায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাবেক সদস্য আফজাল হোসেন ও তার সন্তান বাংলা টিভির রংপুর প্রতিনিধি এস এম রাফাত হোসেন বাঁধনের উপর হামলা করেছে কাউন্সিলর ফুলুর সন্ত্রাসী বাহিনী। এ ঘটনায় দোকান-ঘর ভাংচুর,অর্থ লোপাট ও মধ্যরাতে দোকান পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে তারা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গত শনিবার সন্ধ্যা পৌনে আটটার সময় রংপুর নগরীর ১৩ নং ওয়ার্ডের তিন নং এমপি(মিলিটারি পুলিশ) চেকপোস্টের সামনে যুগিটারিতে যৌথ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে কাউন্সিলর ফজলে এলাহী ফুলু ও তার গঠিত সন্ত্রাসী বাহিনী কর্তৃক হামলার শিকার হন।

এ ব্যাপারে সাবেক সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার আফজাল হোসেন জানান- আমাদের সরকারি পুরস্কারপ্রাপ্ত কনফিডেন্স সেফিং এন্ড ক্রেডিট কো-অপারেটিভ নামে একটি সমবায়ী প্রতিষ্ঠান রয়েছে।এই প্রতিষ্ঠানের নামে একটি তিন নম্বর এমপি চেকপোষ্টে “কনফিডেন্স টাওয়ার”বিল্ডিং তৈরি করা হচ্ছে। এই জমির পূর্ব দিকের জমি ফুলু কাউন্সিলরের, সে তার জমিতে বিল্ডিং করার জন্য কাজ শুরু করছে। মাগরিরের পূর্বে আমাদের কনফিডেন্স সমবায়ের পাঁচজন সদস্য ওনার কাছে গিয়ে সামীনা প্রাচীর নির্ধারন বিষয়ে কথা বলি। তিনি তখন আমাদের পাঁচজন সাবেক সেনা সদস্যকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এবং হত্যার হুমকি দেয়।এসময় সাত বছর পূর্বে সিটির বিভিন্ন জায়গায় নলকুপ স্থাপন ও অন্যান্য আমাদের দোকানে খরচ করেন সেই বাবদ ১,৬০,০০০(এক লাখ ষাট হাজার) টাকা প্রায় পাওনা চাওয়া হয়। মাগরিবের নামাজের পর হঠাৎ করে তিনি ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী আমার ও আমার সন্তানের ওপর হামলা করেন।আমাদের দোকান ভাংচুর ও লুটপাট করেন ।

তিনি আরোও জানান- প্রতিমাসে ফুলুকে দশ হাজার করে টাকা চাঁদা দিতে হয় ব্যবসা করার জন্য কিন্তু গত কয়েকমাস ধরে করোনার কারণে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় আয় করতে না পারলে চাঁদা দেওয়া বন্ধ করি। চাঁদা না দেওয়া এই হামলা করেছেন।

বাংলা টিভির প্রতিনিধি বাধন জানান- আমার বাসায় কয়েকজন সাংবাদিক ঈদুল আযহার দাওয়াত খেতে আসেন। হঠাৎ আমার বাবার ওপর কাউন্সিলর কর্তৃক হামলার খবর শুনে দৌড়ে যায়।পিছনে পিছনে সহকর্মীরা এগিয়ে যায়। সন্ত্রাসীবাহিনীর হামলার শিকার হন পিবিএ এজেন্সি রংপুর সংবাদদাতা হিমেল ও আমাদের প্রতিদিনের স্টাফ রির্পোটার শরিফুল ইসলামসহ অনেকে আহত হয়।

ঘটনার সত্যতার নিশ্চিতকরণে সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়- পরিকল্পিতভাবে সাংবাদিক ও তার পিতার ওপর হামলা করেছে ফৃলু সন্ত্রাসী বাহিনী বলে দাবী করছেন এলাকাবাসী। এমনকি রাত তিনটার দিকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন এতে আনুমানিক ৯০( নব্বই হাজার) টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কনফিডেন্স টাওয়ার থেকে পাম্পসহ ১,৫০,০০০(দেড় লাখ) টাকার মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়।

এছাড়া সাবেক সেনা সদস্য আব্দুল ওহাব মিয়া জানান- দোকানের ক্যাশ থেকে প্রায় ৪,০০০০০(চার লাখ) টাকা প্রায় ছিনিয়ে নিয়ে যায় ফুলুর

এঘটনায় রংপুরে কর্মরত সম্মিলিত সাংবাদিক সমাজের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোপ জানিয়েছে। দ্রুত আসামীদের গ্রেফতার করা তাগিদ করছেন প্রশাসনকে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.